চাঁদাবাজি ও ছিনতাইয়ের মামলায় রংপুর জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম রবিনকে (২৮) কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) সন্ধ্যায় রংপুর মেট্টোপলিটন তাজহাট আমলি আদালতের বিচারক শুনানি শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে বুধবার (২ মার্চ) রাতে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার রবিন নগরীর আলমনগর খামার চারতলা মোড় এলাকার মো. মুন্না মিয়ার ছেলে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের তাজহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতারুজ্জামান প্রধান। মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ ফ্রেরুয়ারি রংপুর নগরীর আলমনগর খামারপাড়া এলাকার হেলাল আহমেদের ছেলে ব্যবসায়ী নাজমুল সাকিব (২২) স্থানীয় একটি ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে ৫০ হাজার টাকা উত্তোলন করে সেখানে একটি চায়ের দোকানে গিয়ে চা পান করছিলেন। এ সময় জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম রবিন তার কয়েকজন সহযোগীসহ সাকিবকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে রংপুর কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের পুকুর পাড়ে যান এবং সাকিবকে মারধর করে তার কাছে থাকা ৫৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এ ঘটনায় পরেরদিন ২৭ ফেব্রুয়ারি ব্যবসায়ী সাকিব বাদী হয়ে ছিনতাই ও চাঁদাবাজির অভিযোগে রবিনসহ আরও তিন সহযোগীর নামে তাজহাট থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর বুধবার রাত সাড়ে তিনটার দিকে রবিনকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রংপুর মেট্টোপলিটন তাজহাট আমলি আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এ বিষয়ে রংপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি শুনেছি। এ বিষয়ে বিস্তারিত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে অবহিত করা হয়েছে। রবিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.